এশার নামাজ কয় রাকাত? এশার নামাজ পড়ার নিয়ম

এশার নামাজ কয় রাকাত, এশার নামাজ ১৭ রাকাত কিনা এবং এশার নামাজ পড়ার নিয়ম নিয়ে আজকের এই পোস্টে আপনাদের সাথে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করতে হলে ইশার নামাজ অবশ্যই আদায় করতে হবে। ইশার নামাজ আদায় করতে হয় রাতে। এটি দিনের শেষ নামাজ। এরপর, আবারও ফজরের নামাজ আদায় করতে হয়।

অনেকেই জানেন না যে এশার নামাজ কয় রাকাত এবং এশার নামাজ কিভাবে আদায় করতে হয়। তো চলুন, এই বিষয়গুলো নিয়ে বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক।

এশার নামাজ কয় রাকাত

এশার নামাজ মোট ১৫ রাকাত। ০৪ রাকাত সুন্নত, ০৪ রাকাত ফরজ, ০২ রাকাত সুন্নত, ০২ রাকাত নফল এবং ০৩ রাকাত বিতর নামাজ সহ এশার নামাজ মোট ১৫ রাকাত। এছাড়াও অনেকের মতে এশার নামাজ মোট ১০ রাকাত।

অর্থাৎ, ০৪ রাকাত সুন্নত, ০৪ রাকাত ফরজ এবং ০২ রাকাত সুন্নত নামাজ মিলে এশার নামাজ মোট ১০ রাকাত। কারণ, এশার নামাজ আদায় করার সময় যে ০২ রাকাত নফল নামাজ আদায় করতে হয়, তার হদিশ কোথাও পাওয়া যায়নি। আর ০৩ রাকাত বিতর নামাজ তাহাজ্জুদ নামাজ আদায় করার পূর্বে আদায় করতে হয়। বিতর নামাজ এশার নামাজের অংশ নয়।

কিন্তু, তবুও অনেকেই এশার নামাজ আদায় করার পরে ০২ রাকাত নফল নামাজ আদায় করেন এবং ০৩ রাকাত বিতর নামাজ আদায় করে থাকেন। তো, আমাদের প্রায় সব মুসলিম ভাই-বোনের করা প্রশ্ন এশার নামাজ ১৫ রাকাত কি কি আশা করি জানতে পেরেছেন। এখন আমরা এশার নামাজ আদায় করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত জানবো।

এশার নামাজ ১৭ রাকাত কি কি

এশার নামাজ ১৭ রাকাত নয়। এশার নামাজ মোট ১৫ রাকাত। ৪ রাকাত সুন্নত নামাজ, ৪ রাকাত ফরজ নামাজ, ২ রাকাত সুন্নত নামাজ, ২ রাকাত নফল নামাজ এবং ৩ রাকাত বিতর নামাজ মিলে এশার নামাজ মোট ১৫ রাকাত।

তবে, বিতর নামাজ এশার নামাজের অংশ নয়। কারণ, বিতর নামাজ তাহাজ্জুদ নামাজ আদায় করার পূর্বে আদায় করতে হয়। তো, এশার নামাজ ১৭ রাকাত কি না এবং এশার নামাজ ১৫ রাকাত কি কি আশা করছি জানতে পেরেছেন। চলুন, এখন ইশার নামাজ পড়ার নিয়ম জেনে নেয়া যাক।

এশার নামাজ পড়ার নিয়ম

এশার ওয়াক্ত হয়ে গেলে এশার নামাজ আদায় করতে হয়। এশার নামাজের ওয়াক্ত হলে প্রথমেই ৪ রাকাত সুন্নত নামাজ আদায় করতে হয়। এরপর, ৪ রাকাত ফরজ নামাজের জামাতের সহিত আদায় করতে হয়। তবে, জরুরী অবস্থায় একাকী আদায় করা যাবে। অতঃপর, ২ রাকাত সুন্নত নামাজ আদায় করতে হয়।

এরপর, ২ রাকাত নফল নামাজ আদায় করা যেতে পারে। যদি তাহাজ্জুদ এর জন্য উঠার আশংকা তৈরি হয়, তবে ৩ রাকাত বিতর নামাজ আদায় করে নেয়া যেতে পারে।

নিচে এশার নামাজ আদায় করার নিয়ম আরও বিস্তারিত উল্লেখ করে দিয়েছি। চলুন, জেনে নেয়া যাক।

এশার ৪ রাকাত সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম

এশার ৪ রাকাত সুন্নত নামাজ বাসায় বা মসজিদে গিয়ে পড়তে পারে। ওজু করার পর জায়নামাজে দাঁড়াতে হবে নামাজ আদায় করার জন্য। জায়নামাজে দাঁড় হওয়ার পূর্বে জায়নামাজের দোয়া পড়তে হবে। এরপর, নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন।

  • জায়নামাজে দাঁড়ানোর পর এশার ৪ রাকাত সুন্নত নামাজের নিয়ত করতে হবে। এরপর, আল্লাহু আকবার বলে হাত বেঁধে নামাজ শুরু করতে হবে।
  • অতঃপর, আউজুবিল্লাহ বিসমিল্লাহ্‌ পড়তে হবে এবং সানা পড়তে হবে। অতঃপর, সূরা ফাতিহা পড়তে হবে এবং অন্য সূরা মেলাতে হবে। শেষে আল্লাহু আকবার বলে রুকুতে যেতে হবে এবং রুকুর তসবিহ পড়তে হবে।
  • অতঃপর, সামিয়াল্লাহু লিমান হামিদা পড়ে উঠে দাঁড়িয়ে রাব্বানা লাকাল হামদ পড়তে হবে। আল্লাহু আকবার বলে সিজদায় যেতে হবে। দুইবার সিজদা করতে হবে।
  • এরপর, আবারও উঠে দাঁড়িয়ে একইভাবে নামাজ আদায় করতে হবে। সিজদা করার পর বসতে হবে এবং তাশাহুদ পড়তে হবে। এরপর, উঠে দাঁড়িয়ে আবারও একইভাবে দুই রাকাত নামাজ আদায় করতে হবে।
  • মোট ০৪ রাকাত নামাজ আদায় হলে শেষ বৈঠকে বসতে হবে। শেষ বৈঠকে বসে তাশাহুদ, দরুদ শরীফ এবং দোয়া মাছুরা পড়তে হবে। এরপর, সালাম ফিরিয়ে নামাজ আদায় সম্পন্ন করতে হবে।

একই নিয়ম অনুসরণ করে যেকোনো ওয়াক্তে ০৪ রাকাত সুন্নত নামাজ আদায় করতে পারে। এছাড়াও, এই নিয়মেই একাকী ৪ রাকাত ফরজ নামাজও আদায় করতে পারবেন। তবে, নিয়ত ভিন্ন করতে হবে।

এশার ৪ রাকাত ফরজ নামাজ পড়ার নিয়ম

এশার ৪ রাকাত ফরজ নামাজ আদায় করার জন্য আসরের ৪ রাকাত ফরজ নামাজ পড়ার নিয়ম অনুসরণ করতে পারেন। জামাতের সহিত নামাজ আদায় করার জন্য ইমামের পিছনে দাঁড়িয়ে ঠিকভাবে তাকবির দিতে হবে।

তবে, আপনি যদি একাকী ৪ রাকাত ফরজ নামাজ আদায় করতে চান, সেক্ষেত্রে, উপরে উল্লেখ করে দেয়া এশার ৪ রাকাত সুন্নত নামাজ আদায় করার নিয়ম অনুসরণ করতে পারেন। শুধুমাত্র নামাজ আদায় করার পূর্বে নামাজের নিয়ত করে নিতে হবে।

এশার ২ রাকাত সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম

এশার দুই রাকাত সুন্নত নামাজ ফরজ নামাজ আদায় করার পর পড়তে হয়। এই দুই রাকাত সুন্নত নামাজ আদায় করার জন্য উপরে উল্লেখ করে দেয়া এশার চার রাকাত সুন্নত নামাজ আদায় করার নিয়ম অনুসরণ করতে পারেন। তবে, নামাজ আদায় শুরু করার পূর্বে দুই রাকাত আদায়ের নিয়ত করতে হবে এবং দুই রাকাত আদায় করতে হবে।

তবে, আপনি চাইলে ফজরের ২ রাকাত সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম অনুসরণ করতে পারেন। শুধুমাত্র নামাজ শুরু করার পূর্বে মাগরিবের ২ রাকাত সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ত করে নিতে হবে।

এশার ২ রাকাত নফল নামাজ পড়ার নিয়ম

এশার ২ রাকাত নফল নামাজ পড়ার জন্য সুন্নত নামাজ আদায়ের নিয়ম অনুসরণ করতে হবে। একইভাবে দুই রাকাত নফল নামাজ আদায় করতে পারবেন। শুধুমাত্র নামাজ পড়ার পূর্বে নফল নামাজের নিয়ত করে নিতে হবে।

যেকোনো দুই রাকাত নামাজ আদায় করার নিয়ম একই। শুধুমাত্র নামাজ আদায় করার পূর্বে নিয়ত ভিন্ন করতে হয় এবং প্রতি রাকাত নামাজে সূরা ফাতিহার সঙ্গে অন্য সূরা মেলাতে হয়। অর্থাৎ, প্রথম রাকাতে সূরা ফাতিহা পড়ে যে সূরা পড়েছেন, দ্বিতীয় রাকাতে সেই সূরা না পড়ে অন্য সূরা পড়তে হবে।

এভাবে করে ৪ রাকাত নামাজ আদায় করার সময় সূরা ফাতিহার সঙ্গে ভিন্ন ৪টি সূরা মেলাতে হবে। এভাবে করেই আপনি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করতে পারবেন।

বিতরের ৩ রাকাত নামাজ পড়ার নিয়ম

বিতরের ৩ রাকাত নামাজ তাহাজ্জুদ নামাজ আদায় করার পূর্বে আদায় করতে হয়। তবে, আপনি চাইলে এশার নামাজ আদায় করা শেষে বিতরের নামাজ আদায় করতে পারেন। বিতরের নামাজ আদায় করার জন্য নিচে উল্লিখিত পদ্ধতিগুলো অনুসরণ করতে পারেন।

  • প্রথমেই বিতর নামাজের জন্য দাঁড়াতে হবে এবং বিতর নামাজের নিয়ত করে নিতে হবে। এরপর, তাকবিরে তাহরিমা “আল্লাহু আকবার” বলে নামাজ শুরু করতে হবে।
  • অন্যান্য নামাজের মতো করেই সানা, সূরা ফাতিহা এবং অন্য সূরা পড়ে রুকুতে যেতে হবে।
  • রুকু সম্পন্ন করে সিজদা করতে হবে। সিজদা করার পর আবারও একইভাবে আরও এক রাকাত নামাজ আদায় করতে হবে।
  • অতঃপর, দুই রাকাত সম্পন্ন হলে বসে তাশাহুদ পড়তে হবে এবং আবারও উঠে দাঁড়াতে হবে।
  • উঠে দাঁড়িয়ে সূরা ফাতিহা পড়তে হবে এবং অন্য যেকোনো সূরা মেলাতে হবে।
  • এরপর, তাকবিরে তাহরিমা “আল্লাহু আকবার” বলে কান অব্দি হাত উঠিয়ে আবারও হাত বাঁধতে হবে এবং দোয়া কুনুত পড়তে হবে।
  • অতঃপর, অন্যান্য নামাজের মতো করেই রুকু এবং সিজদা করতে হবে। শেষ বৈঠকে বসতে হবে এবং সালাম ফিরানোর মাধ্যমে নামাজ আদায় সম্পন্ন করতে হবে।

উপরে উল্লিখিত এই ধাপগুলো অনুসরণ করে সহজেই বিতরের ৩ রাকাত নামাজ আদায় করতে পারবেন।

FAQ

এশার নামাজ কয় রাকাত কি কি

এশার নামাজ মোট ১০ রাকাত। ৪ রাকাত সুন্নত, ৪ রাকাত ফরজ, ২ রাকাত সুন্নত। তবে, আরও ২ রাকাত নফল এবং ৩ রাকাত বিতর নামাজ সহ এশার মোট ১৫ রাকাত নামাজ আদায় করা যায়।

এশার নামাজ  রাকাত কি কি

এশার নামাজ ৯ রাকাত নয়। এশার নামাজ মোট ১০ রাকাত থেকে ১৫ রাকাত অব্দি আদায় করতে পারবেন।

শেষ কথা

আমাদের স্পেসিফিক ইনফো ওয়েবসাইটের আজকের এই পোস্টে আপনাদের সাথে এশার নামাজ কয় রাকাত এবং এশার নামাজ পড়ার নিয়ম নিয়ে আলোচনা করেছি। এছাড়াও, এশার নামাজ ১৫ রাকাত কি কি এবং এশার নামাজ ১৭ রাকাত কিনা এসব বিষয় নিয়েও আলোচনা করেছি।

পোস্ট সম্পর্কে আপনার মতামত, যেকোনো প্রশ্ন করতে পারেন কমেন্ট বক্সে।

আমি Specific Info ওয়েবসাইটের প্রতিষ্ঠাতা এবং অ্যাডমিন। প্রফেশনালি কন্টেন্ট রাইটিং করার পাশাপাশি এই ব্লগে পড়ালেখা, সাধারণ জ্ঞান বিষয়ক তথ্য নিয়ে লিখে থাকি।

Leave a Comment